ক্রেডিট ও ডেবিট কার্ড

0
495

কারেন্ট একাউন্ট (ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানের নামে খোলা একাউন্ট) | সেভিংস একাউন্ট (ব্যক্তি নামে খোলা একাউন্ট) এই দুই ধরণের একাউন্টের সাথে আপনি ডেবিট কার্ড + চেকবই পাবেন (মাস্টার বা ভিসা লোগো সহ) বাৎসরিক একটা চার্জ এর জন্য আপনাকে দিতে হবে, বিভিন্ন ব্যাংক ভেদে এর চার্জ নির্ধারণ। (ডেবিট কার্ড দিয়ে আপনার একাউন্টে যেই পরিমান টাকা জমা রাখা ওই টাকা আপনি নগদ উঠান সহ কেনাকাটা করতে পারবেন)

অর্থাৎ, আপনার একাউন্টে টাকা থাকলেই শুধু মাত্র ডেবিট কার্ড দিয়ে তুলতে পারবেন, টাকা না থাকলে পারবেন না।
আর ক্রেডিট কার্ড দিয়ে সবসময়ই (থাকা+না থাকা) তুলতে পারবেন।
ডেবিট কার্ড পাওয়া ইজি। ইনফ্যাক্ট যে কোন ধরনের সেভিংস একাউন্ট খুললেই ডেবিট কার্ড দেয়।
ক্রেডিট কার্ড পেতে হলে বেশ কিছু শর্ত পূরণ করতে হয়।

ক্রেডিট কার্ডের জন্য আপনাকে কিছু নিয়মের মাঝে থেকে তা পেতে হবে, ক্রেডিট কার্ড ব্যাংক গুলা প্রদান করে কয়েকটা প্রকারভেদে, যেমন:

১| চাকুরীর ব্যাসিক বা মূল বেতন এর উপর নির্ভর করে চলতি মাস সহ বিগত ৬’মাসের বেতনের স্টেটমেন্ট এর উপর নির্ভর করে।

২| যদি আপনার প্রতিষ্ঠান থাকে সেই প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক একাউন্টের স্টেটমেন্ট এর উপর বিবেচনা করে।

৩| আপনি ব্যাংকে লেনদেন করেন সেই ব্যাংকে যদি আপনার ফিক্সেড ডিপোজিট বা আমরা যাকে বলি এফ. ডি.আর. বা ডি.পি.এস. যা মাসে মাসে জমা রেখে সঞ্চয় হয় এটার এগেনেস্টে আপনাকে ৮০% থেকে সর্বোচ্চ ৯০% ক্রেডিট বা লোন দিবে একটা নির্দিষ্ট একাউন্টের মাধ্যমে যাতে আপনি একটি এটিএম কার্ড ও চেকবই পাবেন যার নাম ক্রেডিট কার্ড। (আপনাকে ঠিক যেই পরিমান ক্রেডিট বা লোন ওই কার্ডে দিবে ঠিক তত পরিমান আপনি কেনাকাটা বা নগদ উত্তোলন করতে পারবেন আবার ওই টাকা সময়ের মধ্যে আপনাকে পরিশোধ করতে হবে, যদি ক্রেডিট বা লোন পরিমান অতিক্রম করে তবে আপনি আর টাকা উত্তোলন বা কেনাকাটা করতে পারবেনা)