দাড়ি ঘন করার ঘরোয়া উপায়,দাড়ি গজানোর নতুন টিপস একবার ট্রাই করে দেখুন, হাতে নাতে ফল পাবেন

0
1118

বেশির ভাগ ছেলেরাই দাঁড়ি রাখতে পছন্দ করে। ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের মধ্যে দাঁড়ি রাখা বাধ্যতামূলক। তবে ইচ্ছে থাকলেও অনেকেই দাঁড়ি রাখতে পারেনা, তাই তারা হতাশ হয়ে পড়ে, অনেকে আবার এই জন্য অনেকের মুখে অনেক রকম কথা শুনে থাকেন। এছাড়া এমন ও কিছু মানুষ দেখা যায় যারা বিভিন্ন ধরণের ডিজাইন করে দাঁড়ি রাখা পছন্দ করেন। কিন্তু যারা ইচ্ছে থাকা সত্ত্বেও দাঁড়ি রাখতে পারেন না তারা এই ৯ টি কাজ করুন । এভাবে কিছুদিন করুন তাহলেই হাতে-নাতে ফল পাবেন।

১. রোজ নিয়মিত ভাবে আমলকির তেল ব্যবহার করুন। এটি দ্রুত দাঁড়ি গজাতে সাহায্য করে। ১৫-২০ মিনিট ধরে এই তেল মুখে ঘোষুণ তারপর ঠান্ডা জল দিয়ে মুখটা ধুয়ে নিন।

২. দিনে দু বার মৃদু ক্লিনার দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন, মুখ ধোয়ার সময় হালকা গরম জল ব্যবহার করুন। কারণ এতে আপনার মুখ পরিষ্কার থাকবে। আর পরিষ্কার মুখ দাঁড়ি বৃদ্ধির জন্য উপযুক্ত।

৩.ইউক্যালিপটাস ব্যবহার করুন। এটি দ্রুত দাঁড়ির বৃদ্ধি ঘটায়।

৪. দাঁড়ি ভালো ও দ্রুত হওয়ার জন্য পর্যাপ্ত ঘুম প্রয়োজন। কারণ ঘুমের ঘাটতি থাকলে কোষের পুনর্গঠন সম্ভব হয় না। কিন্তু পর্যাপ্ত ঘুম ক্ষতিগ্রস্ত কোষের পুনর্গঠনে সাহায্য করে। এর ফলে দাঁড়ি গজাতে পারে। তাই ভালো দাঁড়ির জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুমিয়ে নিন।

৫. ভিটামিন ও মিনারেল যেমন শরীরের জন্য উপকারী। ঠিক একইরকম ভাবে এটি দ্রুত দাঁড়ি গজানোর জন্য ও খুব উপকারী। প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় রাখুন ভিটামিন এ, ভিটামিন ই ও ভিটামিন সি জাতীয় খাবার। যা আপনার দ্রুত দাঁড়ি গজাতে সাহায্য করবে।

আরও পড়ুন- দিনে বেশি ঘুমালে শরীরে কি হয় জানেন? জানলে চমকে যাবেন, জানলে হয়তো মেয়েরাই সর্বপ্রথম….

৬. প্রতিদিন ২.৫ মিলিগ্রাম বায়োডিন সাপলিমেন্ট গ্রহণ করুন। এটি চুল গজাতে সাহায্য করে। তবে সব ধরণের প্রোডাক্ট ব্যবহার করবেন না, ব্যবহার করার আগে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

৭. অনেক সময়ে তীব্র মানসিক চাপ থেকে ও দাঁড়ি জন্মায় না। তাই মানসিক চাপ কম করুন। ধ্যান, যোগাসন করে মানসিক চাপ কম করতে পারেন। মানসিক চাপ কম থাকলে দ্রুত দাঁড়ি গজাতে পারে।

৮. প্রতিদিনের খাবারের মেনুতে রাখুন প্রোটিন জাতীয় খাবার অর্থাৎ মাছ, মাংস, ডিম প্রভৃতির যে কোনো একটা । প্রোটিন জাতীয় খাবার দাঁড়ির বৃদ্ধি ঘটাতে সাহায্য করে।

৯. মুখের ম্যাসেজ রক্ত চলাচল বাড়ায় এবং চুলের বৃদ্ধি ঘটায়। তাই মাঝে মাঝেই মুখের ম্যাসেজ করুন। এবং ৫-৬ মাস পর পর দাঁড়ির ট্রিপিং করুন।

যাদের দাঁড়ি রাখার খুব শখ থাকা সত্ত্বেও দাঁড়ি গজায় না, তারা আজ থেকেই শুরু করুন এই ৯ টি জিনিস করা। তাহলেই ফল পেয়ে যাবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here